Wed. Apr 24th, 2024

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

অধ্যায়ঃ অভিব্যক্তি ও অভিযোজন

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

 

(iii) বামহস্ত-ডানহস্ত মিলিয়ে উভয় স্তম্ভের ক্রমিক সংখ্যাসহ সঠিক জরাটি পুনরায় লেখো :

1.

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) আন্তঃপ্রজাতি সংগ্রাম  (a) রুই মাছের পটকা 
(ii) রেড গ্রন্থি  (b) অপসারী বিবর্তনকে নির্দেশ করে 
(iii) সমসংস্থ অঙ্গ  (c) পেরিপেটাস 
(iv) জীবন্ত জীবাশ্ম  (d) একদল হরিণ ও বাঘের মধ্যে সংগ্রাম 
(v) মায়োটোম পেশি  (e) নিষ্ক্রিয় অঙ্গবিশেষ 
(f) রুই মাছের গমন 

 

উত্তরঃ 

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) আন্তঃপ্রজাতি সংগ্রাম  (d) একদল হরিণ ও বাঘের মধ্যে সংগ্রাম
(ii) রেড গ্রন্থি  (a) রুই মাছের পটকা 
(iii) সমসংস্থ অঙ্গ  (b) অপসারী বিবর্তনকে নির্দেশ করে 
(iv) জীবন্ত জীবাশ্ম (c) পেরিপেটাস
(v) মায়োটোম পেশি  (f) রুই মাছের গমন 

 

2.

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) লুপ্তপ্রায় অঙ্গ (a) ফড়িং এর ডানা ও বাদুড়ের ডানা
(ii) সমবৃত্তীয় অঙ্গ (b) সায়ানোজেন মতবাদ
(iii) ফ্লুজার (c) জার্মপ্লাজম তত্ত্ব
(iv) হেকেল (d) ভার্মিফর্ম অ্যাপেনডিক্স
(v) ডারউইন (e) রিক্যাপিচুলেশন থিয়োরি
(f) প্রাকৃতিক নির্বাচনবাদ

 

উত্তরঃ 

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) লুপ্তপ্রায় অঙ্গ (d) ভার্মিফর্ম অ্যাপেনডিক্স 
(ii) সমবৃত্তীয় অঙ্গ  (a) ফড়িং এর ডানা ও বাদুড়ের ডানা 
(iii) ফ্লুজার  (b) সায়ানোজেন মতবাদ 
(iv) হেকেল  (e) রিক্যাপিচুলেশন থিয়োরি 
(v) ডারউইন  (f) প্রাকৃতিক নির্বাচনবাদ 

 

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) পায়রার দেহে প্রধান বায়ুথলির সংখ্যা (a) অ্যাপেনডিক্স 
(ii) ‘ ব্যবহার ও অপব্যবহার ‘ মতবাদটির প্রবক্তা  (b) ল্যামার্ক
(iii) পৃথিবীতে কোন দুটি জীব একবারে একইরকম হয় না। এর কারণ (c) নয় টি
(iv) মৌমাছির চক্রাকার নৃত্য সাহায্য করে (d) প্রজননের জন্য
(v) মানুষের একটি নিষ্ক্রিয় অঙ্গ (e) খাদ্যের সন্ধানে
(f) প্রকরণ

 

উত্তরঃ 

বামহস্ত ডানহস্ত
(i) পায়রার দেহে প্রধান বায়ুথলির সংখ্যা (c) নয় টি
(ii) রেড গ্রন্থি  (b) ল্যামার্ক
(iii) পৃথিবীতে কোন দুটি জীব একবারে একইরকম হয় না। এর কারণ (f) প্রকরণ
(iv) মৌমাছির চক্রাকার নৃত্য সাহায্য করে (e) খাদ্যের সন্ধানে
(v) মানুষের একটি নিষ্ক্রিয় অঙ্গ (a) অ্যাপেনডিক্স 

 

একটি শব্দে বা একটি বাক্যে উত্তর দাও :

Q.‘প্রাকৃতিক নির্বাচন’ কার মতবাদ ?

Ans : ‘প্রাকৃতিক নির্বাচন’ ডারউইন-এর মতবাদ ।

 

Q. আনুমানিক কতদিন আগে জীবের উৎপত্তি ঘটেছিল ?

Ans : আনুমানিক 300 কোটি বছর আগে জীবের উৎপত্তি ঘটেছিল ।

Q. কোন শ্রেণির প্রাণীর হৃৎপিন্ড দু-প্রকোষ্ঠ যুক্ত ?

Ans : মৎস্য শ্রেণির প্রাণীর হৃৎপিন্ড দু-প্রকোষ্ঠ যুক্ত হয় ।

 

Q. ঘোড়ার আদি পূর্বপুরুষের নাম কী ?

Ans : আদি পূর্বপুরুষের নাম হল ইওহিপ্পাস।

Q. আধুনিক ঘোড়ার আদি পূর্বপুরুষের নাম কী ছিল ?

Ans : ইয়োহিপ্পাস

 

Q. প্ৰথম সৃষ্ট দুটি হাইড্রোকার্বনের নাম লেখো ।

Ans : প্রথম সৃষ্ট দুটি হাইড্রোকার্বন হল—মিথেন (CH4),অ্যাসিটিলিন (C2H2) ইত্যাদি ।

Q. মিলার ও উরের পরীক্ষার প্রধান উপাদানগুলি কী ছিল ?

Ans : মিলার ও উবের পরীক্ষার প্রধান উপাদানগুলি হল মিথেন, অ্যামোনিয়া ও হাইড্রোজেন ।

 

Q. মৌমাছির কয়প্রকার নৃত্য দেখা যায় ?

Ans : মৌমাছির চক্রাকার নৃত্য এবং ‘8’ আকৃতির ওয়াগটেল নৃত্য দেখা যায় ।

Q. পায়রার ফুসফুসের সঙ্গে কতগুলি বায়ুথলি বা এয়ার স্যাক যুক্ত থাকে ?

Ans : পায়রার ফুসফুসের সঙ্গে 9টি বায়ুথলি বা এয়ার স্যাক যুক্ত থাকে ।

 

Q. উটের RBC-র বৈশিষ্ট্য কী যা জল নিরুদন হ্রাস করে ?

Ans : উটের RBC বড়ো, ডিম্বাকার ও নিউক্লিয়াসযুক্ত যা জল নিরুদন হ্রাস করে ।

Q. মানুষের চোখে অবস্থিত লুপ্ত অঙ্গ কোনটি ?

Ans : মানুষের চোখে অবস্থিত লুপ্তপ্ৰায় অগাহল নিকটিটেটিং পর্দা ।

 

Q. অস্থিবিশিষ্ট মাছেদের পটকার অগ্রপ্রকোষ্ঠে অবস্থিত গ্যাস উৎপাদনকারী অঙ্গটির নাম কী ?

Ans : অস্থিবিশিষ্ট মাছেদের পটকার অগ্রপ্রকোষ্ঠে অবস্থিত গ্যাস উৎপাদনকারী অঙ্গটির নাম হল রেড গ্ল্যান্ড ।

 

Q. কীরূপ বিবর্তনের ফলে সমসংস্থ অঙ্গের উৎপত্তি হল ?

Ans : অভিসারী বিবর্তনের ফলে সমসংস্থ অঙ্গের উৎপত্তি ঘটে ।

Q. ডারউইন তত্ত্বের ত্রুটিগুলি উল্লেখ করাে। আধুনিক সংশ্লেষণবাদ বা নয়া ডারউইনবাদ কী?

উত্তর : ডারউইন তত্ত্বের ত্রুটিগুলি হল :
(i) ডারউইন প্রকরণের কথা বললেও প্রকরণের ব্যাখ্যা দিতে পারেননি।
(i) ডারউইন ছােটো ও অস্থায়ী প্রকরণের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। কিন্তু ওইগুলির বংশানুসরণ না হওয়ায় বিবর্তনে ওদের ভূমিকা নেই।
(iii) “যােগ্যতমের উদবর্তন’-এর সঠিক ব্যাখ্যা তাঁর পক্ষে দেওয়া সম্ভব হয়নি।
(iv) যােগ্য জীবেরা বেঁচে থাকলেও তাদের আবির্ভাবের কারণ সম্পর্কে ব্যাখ্যা করেননি।
(v) কোনাে অঙ্গের অতি স্বতন্ত্রীকরণে প্রজাতি বিলুপ্ত হয়। ডারউইনতত্ত্বে এর কোনাে উল্লেখ নেই।
(vi) ডারউইন মিউটেশনকে প্রকৃতির খেলা (Sports of Nature) বলে উপেক্ষা করেছেন।
আধুনিক সংশ্লেষণবাদ :
ডারউইন মতবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর প্রাকৃতিক নির্বাচনকে জীববিজ্ঞানীগণ অভিব্যক্তির মূল কারণ হিসেবে বিবেচিত করেন। পরবর্তী সময়ে বংশগতি বিজ্ঞানের নব নব আবিষ্কার ও উন্নতির সঙ্গে ধারণা পাওয়া গেল যে জীবসৃষ্টির প্রধান কারণ কেবলমাত্র প্রাকৃতিক নির্বাচন নয়। তাছাড়া ডারউইন মতবাদ যখন প্রকাশ হয়েছিল তখন বংশগতি বিজ্ঞান, জিন, মিউটেশন ইত্যাদি সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণার অভাব ছিল। তাই প্রকরণ ও প্রকরণের কারণ সম্পর্কে ধারণা ডারউইন দিতে ব্যর্থ হন। বর্তমানকালে প্রজনন বিদ্যার জ্ঞানের আলােকে ডারউইন মতবাদকে নতুনভাবে প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে। যা হল আধুনিক সংশ্লেষণবাদ (Modern Synthetic theory)। অনেকে একে নয়া ডারউইনবাদও বলে।

 

Q. রাসায়নিক সংশ্লেষ মতবাদ ব্যাখ্যা করার জন্য মিলার ও উরের পরীক্ষাটি বর্ণনা করাে।

উত্তর : বিজ্ঞানী ওপারিন ও হ্যালডেন ধারণা দিয়েছিলেন যে আদিম পৃথিবীর অক্সিজেন। বিহীন পরিবেশে অধিক তাপমাত্রায়, বিদ্যুৎক্ষরণ ও UV রশ্মির প্রভাবে বিভিন্ন সরল অজৈব অণু (CO,, NH3, CHg, HO) পরস্পর বিক্রিয়া করে জটিল জৈব অণু তৈরি করে। এই মতবাদকেই রাসায়নিক সংশ্লেষ মতবাদ বলা হয়।
এই ঘটনার প্রথম পরীক্ষামূলক প্রমাণটি করেন বিজ্ঞানী স্ট্যানলে মিলার ও হ্যারল্ড উরে।
মিলার ও উরের পরীক্ষা : মিলার ও উরে (1935) একটি পাঁচ লিটার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন গােল কাচপাত্রে দুটি টাংস্টেন ইলেকট্রোড যুক্ত করেন। ফ্লাক্সটিকে একটি ঘনীভবন যন্ত্রের সঙ্গে যুক্ত করা হয় যাতে দুটি নল যুক্ত আছে। একটি দিয়ে ঠান্ডা জল ঢােকে, অন্যটি দিয়ে গরম জল বেরিয়ে যায়।
পরীক্ষা : প্রথমে তারা বড়াে গােলাকার ফ্লাক্সে মিথেন (CH,), অ্যামােনিয়া (NH) এবং হাইড্রোজেন গ্যাস (H, 2 : 2: 1 অনুপাতে জলীয় বাষ্পের মধ্যে রাখেন। টাংস্টেন ইলেকট্রোডের সাহায্যে বড়াে ফ্লাক্সে প্রায় 60,000 ভােল্টের বিদ্যুৎ স্ফুলিঙ্গ প্রয়ােগ করা হয়। ছােট ফ্লাক্সের জলকে ক্রমাগত উত্তপ্ত করার ফলে জলীয় বাষ্প প্রবাহিত হতে থাকে। ঘনীভবন যন্ত্রে উৎপন্ন জৈব যৌগ U আকৃতির নলে জলীয় মাধ্যমে জমা হয়। এক সপ্তাহ ধরে এই ঘটনা চলার পর উৎপন্ন যৌগকে ক্রোমাটোগ্রাফি এবং বিশ্লেষরের মাধ্যমে শনাক্ত করা হয়।
উৎপন্ন পদার্থগুলি হল গ্লাইসিন, গ্লাইকোলিক অ্যাসিড, অ্যালানিন, ল্যাকটিক অ্যাসিড, সাকসিনিক অ্যাসিড, অ্যাসপারটিক অ্যাসিড, ফরমিক অ্যাসিড, অ্যাসেটিক অ্যাসিড, ইউরিয়া এবং আরও অনেক যৌগ। এ ছাড়া তিনি অ্যাডেনিন উৎপন্ন করতে সক্ষম হয়েছিলেন।
সিদ্ধান্ত : অজৈব পদার্থ থেকে জৈব পদার্থ সৃষ্টি হয়েছে। অর্থাৎ আদিম পৃথিবীর অক্সিজেনবিহীন পরিবেশে তাপশক্তি, তড়িৎ শক্তি ও UV রশ্মির প্রভাবে CH, NH, H,O থেকে জটিল জৈব যৌগ উৎপন্ন হয় যা থেকে প্রাণ সৃষ্টি হয়। 

Q. সুন্দরীগাছের শারীরবৃত্তীয় ও মৌমাছির আচরণগত অভিযােজন উদাহরণসহ বর্ণনা করাে।

উত্তর : সুন্দরীগাছের শারীরবৃত্তীয় অভিযােজন :
সুন্দরীগাছ সুন্দরবন অঞলের ভিজে কর্দমাক্ত এবং লবণাক্ত মাটিতে জন্মায়।।
        শ্বাসমূল : সুন্দরীর গাছের মূল মাটির গভীরে প্রবেশ করে না। মাটির অল্প নীচে বিস্তৃত থাকে। সুন্দরবনের লবণাক্ত মাটিতে অক্সিজেন সরবরাহ কম হওয়ার জন্য কিছু শাখা-প্রশাখা মূল অভিকর্যের বিপরীতে মাটির ওপরে ওঠে আসে শ্বাস বা নিউম্যাটোফোর গঠন করেছে। এই মূলে অসংখ্য শ্বাসর থাকে। এই রন্ত্রের সাহায্যে গাছ বায়ু থেকে অক্সিজেন শােষণ করে।
        কাণ্ড : কান্ডের ত্বক পুরু ও কিউটিকল যুক্ত। রােম ও মােমজাতীয় পদার্থের আস্তরনযুক্ত হওয়ায় লবন জলে কোনাে ক্ষতি হয় না।
        মৌমাছির আচরণগত অভিযােজন : বিভিন্ন প্রাণীর বিভিন্ন রকম আচরণ লক্ষ করা যায়।
(A) শ্রমিক মৌমাছিরা খাবারের সন্ধানে দূর-দূরান্তে উড়ে বেড়ায়। খাবারের খোঁজ পেলে মৌচাকে ফিরে এসে বিশেষ ধরনের নৃত্য পরিবেশন করে।
(B) মৌমাছিটি কীভাবে নাচছে এবং কতক্ষণ ধরে নাচছে তার ওপর ভিত্তি করে অন্যান্য মৌমাছিরা মৌচাক ছেড়ে বেরিয়ে পড়ে এবং খাবারের উৎস স্থানে পৌঁছে যায়।
        (a) চক্রাকার নৃত্য : কার্লভন ফ্রিশ-এর মতে খাদ্যের উৎস মৌচাক থেকে 100 মিটার দূরে থাকলে মৌমাছি বৃত্তাকারে নৃত্য করে। একে চক্রাকার নৃত্য (Round Dance) বলে।
        (b) ওয়াগেল নৃত্য :জার্মান প্রাণীবিদ কালর্ভন ফ্রিশ-এর মতে খাদ্যের উৎস মৌচাক থেকে 100 মিটার-এর বেশি দূরে থাকলে স্কাউট বা শ্রমিক মৌমাছিরা যে আকৃতির নৃত্য করে তাকে ওয়াগেল (waggle) নৃত্য বলে।

 

Q. জীবন্ত জীবাশ্ম বা লিভিং ফসিল কাকে বলে? উদাহরণ দাও।

উত্তর : যে সমস্ত জীব সুদূর অতীতে উৎপত্তি লাভ করেও বিশেষ কোনােরকম পরিবর্তন ছাড়াই এখনও পৃথিবীতে টিকে আছে অথচ তাদের সমসাময়িক জীবগুলির অবলুপ্তি ঘটেছে, তাদের বলে জীবন্ত জীবাশ্ম। যেমন—লিমিউলাস।

Q. বিবর্তন সম্পর্কে ল্যামার্কের মতবাদ সংক্ষেপে আলােচনা করাে।

উত্তর : জে. বি. ল্যামার্ক (1809) জৈব অভিব্যক্তির ওপর যে বিশ্লেষণী তত্ত্ব প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁর লেখা বই ‘ফিলােসফিক জুওলজিক’-এ লিপিবদ্ধ করেন। ল্যামার্কের তত্ত্বকে ল্যামার্কবাদ বলা হয়।
ল্যামার্কবাদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়গুলি নীচে আলােচিত হল—
(1) ব্যবহার ও অব্যবহার সূত্র : ল্যামার্কের মতে জীবদেহের কোন অঙ্গ ক্রমাগত ব্যবহারে সেই অঙ্গটি শক্তিশালী, সবল ও সুগঠিত হবে। আবার দীর্ঘদিনের অব্যবহারের ফলে যে-কোনাে অঙ্গ দুর্বল ও নিষ্ক্রিয় হতে হতে অবশেষে অবলুপ্ত হবে।
ব্যবহার সূত্রের উদাহরণ : জিরাফের পূর্বপুরুষদের গ্রীবা ঘােড়ার গ্রীবার মতােই ছােটো ছিল। কিন্তু আফ্রিকার উষ্ণ অঞলে খাদ্য হিসাবে লম্বা গাছের পাতা আহরণে ক্রমাগত চেষ্টার ফলে আধুনিক জিরাফের গ্রীবা লম্বা হয়েছে।
অব্যবহারের সুত্রের উদাহরণ : (i) অতীতে উড়তে সক্ষম উট পাখির ডানা ক্রমাগত অব্যবহারের ফলে বর্তমানের ক্ষুদ্রাকার নিষ্ক্রিয় ডানায় পরিণত হয়েছে। (
ii) সাপের পূর্বপুরুষদের গিরগিটির মতাে চারটি পা ছিল। কয়েক হাজার বছর ধরে অব্যবহারের ফলে ভূগর্ভ অভিযােজনের জন্য সাপের পা অবলুপ্ত হয়েছে।

(2) পরিবেশের প্রভাব ও জীবের সচেষ্ট : সদা পরিবর্তনশীল পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার জন্য সকল জীব সর্বদা সচেষ্ট হয়—এটি জীবের সহজাত প্রবৃত্তি। ল্যামার্কের মতে, পরিবর্তিত পরিবেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রক্ষার জন্য জীব সচেতনভাবে দেহের অঙ্গের হ্রাস বা বৃদ্ধি ঘটাতে সক্ষম। এইভাবে অঙ্গের ক্ষয় অথবা অভিযােজন বিবর্তনের অন্যতম কারণ। এটি জীবের অর্জিত বৈশিষ্ট্য।

(3) অর্জিত বৈশিষ্ট্য বা গুণাবলির বংশানুসরণ : ল্যামার্কের মতে, কোনাে জীবের জীবনকালে জীব যে সমস্ত বৈশিষ্ট্য বা গুণ অর্জন করে, সেগুলি এক জনু থেকে পরবর্তী জনুতে বংশানুক্রমে সারিত হয়। উদাহরণ : ক্রমাগত উঁচু ডালের পাতা খাওয়ার চেষ্টার ফলে সৃষ্ট লম্বা গলা হল জিরাফের অর্জিত বৈশিষ্ট্য। ল্যামার্কের মতে, এই অর্জিত বৈশিষ্ট্যটি বংশ পরম্পরায় সঞ্চারিত হয়ে আধুনিক লম্বা গ্রীবাযুক্ত জিরাফের আবির্ভাব ঘটেছে।
(4) নতুন প্রজাতির উদ্ভব : অর্জিত গুণাবলির বংশানুসরণের জন্য প্রতিটি জনুতে নতুন নতুন বৈশিষ্ট্য অর্জিত হওয়ার ফলে প্রজাতির মধ্যে পরিবর্তন আসে এবং ধীরে ধীরে অপর একটি নতুন প্রজাতির সৃষ্টি হয়। ল্যামার্কের মতে, এটাই হল বিবর্তনের মূল কারণ। 

Q. নিষ্ক্রিয় অঙ্গ বা লুপ্ত অঙ্গ কী ?

উত্তর : জীবদেহে এককালে সক্রিয় যে সকল অঙ্গ পরিবেশ ও চারিত্রিক পরিবর্তনের ফলে এবং দীর্ঘদিন অপব্যবহারের কারণে বর্তমানে নিস্ক্রিয়, ক্ষয়প্রাপ্ত ও ক্ষুদ্র অঙ্গে পরিণত হয়েছে, তাদের নিষ্ক্রিয় অঙ্গ বা লুপ্ত অঙ্গ বলে। উদাহরণ—মানুষের দেহে অবস্থিত ভার্মিফর্ম অ্যাপেনডিক্স।

 

Q.জৈব অভিব্যক্তি বলতে কী বােঝ? অথবা বিবর্তন কাকে বলে?

উত্তর : যে অতি মন্থর, কিন্তু অবিরাম ও গতিশীল পরিবর্তন প্রক্রিয়ার দ্বারা উদ্বংশীয় (পূর্বপুরুষ) সরলজীব থেকে নতুন প্রকারের জটিলতর ও উন্নত জীবের উদ্ভব ঘটে তাকে অভিব্যক্তি বা বিবর্তন বলে।

Q. অর্জিত বৈশিষ্ট্যের বংশানুসরণ বলতে কি বােঝাে?

উত্তর : ল্যামার্কের মতে কোনাে জীব জীবনকালে নিজ চেষ্টায় যে সমস্ত বৈশিষ্ট্য অর্জন করে তা পরবর্তী বংশে সঞ্চারিত হয়। একে ‘অর্জিত বৈশিষ্ট্যের বংশানুসরণ বলে। প্রতি প্রজন্মে সামান্য পরিমাণ অর্জিত বৈশিষ্ট পরবর্তী প্রজন্মে সঞ্চারিত হওয়ায় কালক্রমে তা পুঞ্জীভূত হয়ে নতুন প্রজাতি সৃষ্টি করে।

 

Q. জৈব বিবর্তন কাকে বলে ?

উত্তর : যে মন্থর ও গতিশীল প্রক্রিয়ায় ধারাবাহিক পরিবর্তনের মাধ্যমে সরল উধ্বংশীয় জীব থেকে অপেক্ষাকৃত জটিল ও উন্নত জীবের উৎপত্তি ঘটে, তাকে জৈব বিবর্তন বা জৈব অভিব্যক্তি বলে।

Q. রুইমাছের জলজ অভিযােজনে পটকার ভূমিকা কী?

উত্তর : রুইমাছের জলজ অভিযােজনে পটকার ভূমিকা : (i) পটকার অগ্রপ্রকোষ্ঠে অবস্থিত রেড গ্রন্থি গ্যাস উৎপন্ন করলে পটকা ফুলে যায় ফলে মাছের আপেক্ষিক ভর কমে যায় ও মাছ জলের ওপরে ভেসে ওঠে। (ii) পশ্চাদ প্রকোষ্ঠ দ্বারা গ্যাস শােষিত হলে পটকা চুপসে যায় এবং মাছের আপেক্ষিক ভর বৃদ্ধি পায় ও মাছ জলের গভীরে চলে যায়।

 

Q. ‘যােগ্যতম উর্তন’ বলতে কী বােঝাে?

উত্তর : ডারউইনের প্রাকৃতিক নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে হারবার্ট স্পেনসার যােগ্যতমের উদ্বর্তন’শব্দ দুটি ব্যবহার করেছিলেন এবং বােঝাতে চেয়েছিলেন অনুকূল প্রকরণ বা বৈশিষ্ট্যযুক্ত জীব প্রাকৃতিক নির্বাচনে জয়ী হয় এবং পৃথিবীতে বেঁচে থাকে।

Q. অঙ্গের ব্যবহার অব্যবহার সূত্র বলতে কী বােঝাে?

উত্তর : ল্যামার্কের মতে জীবদেহের কোনাে অঙ্গ ধারাবাহিকভাবে ব্যবহৃত হলে অঙ্গটির আরও বেশি সুগঠিত, সবল ও উন্নত হয়। অপরদিকে পরিবর্তিত পরিবেশে জীবের অঙ্গটি যদি দীর্ঘকাল অব্যবহৃত থাকে তাহলে অঙ্গটি ধীরে ধীরে ক্ষয়প্রাপ্ত ও কার্যহীন হয়ে পড়ে। এই অঙ্গকে নিস্ক্রিয় অঙ্গ বলা হয়। এই তথ্যকেই ব্যবহার-অব্যবহারে সূত্র রূপে গণ্য করা হয়।

 

Q. অপসারী অভিযােজন কাকে বলে? উদাহরণ দাও।

উত্তর : ভিন্ন ভিন্ন পরিবেশে বসবাসের উদ্দেশ্যে একই গােষ্ঠীভুক্ত জীবদের ভিন্ন ভিন্ন প্রকারের অভিযােজনকে অপসারী অভিযােজন বলে। উদাহরণ : বাদুড়ের খেচর অভিযােজন, তিমির জলজ অভিযােজন এই অপসারী অভিযােজনের উদাহরণ।

Q. অভিসারী অভিযােজন কাকে বলে? উদাহরণ দাও।

উত্তর : একই পরিবেশে বসবাসের জন্য ভিন্ন ভিন্ন গােষ্ঠীভুক্ত জীবের একই প্রকারের অভিযােজনকে অভিসারী অভিযােজন বলে।। উদাহরণ : পাখি ও বাদুডের খেচর অভিযােজন। মাছ ও তিমির জলজ অভিযােজন। উদাহরণ : সুন্দরী, গরান ইত্যাদি উদ্ভিদে দেখা যায়।

 

Q. জীবন্ত জীবাশ্ম কাকে বলে? উদাহরণ দাও।

উত্তর : যে সমস্ত জীব সুদূর অতীতে উৎপত্তি লাভ করে আজও অপরিবর্তিত বৈশিষ্ট্যসমূহ বেঁচে আছে, অথচ সমসাময়িক জীবদের অবলুপ্তি ঘটেছে, তাদের জীবন্ত জীবাশ্ম বা Living Fossil বলে।। উদ্ভিদ – গিঙ্গো বাইলােবা (Ginkgo biloba) সাইকাস Cycas sp. প্রাণী – স্ফেনােডন, প্লাটিপাস।

Q. ‘অঙ্গের ব্যবহার ও অব্যবহার’ সূত্র বলতে কী বােঝ?

উত্তর : জীবদেহের কোনাে অঙ্গ যদি ধারাবাহিকভাবে ক্রমাগত ব্যবহার করা হয় তাহলে অঙ্গটি ধীরে ধীরে সবল ও সুগঠিত হবে। অপরপক্ষে কোনাে অঙ্গ যদি ধারাবাহিকভাবে অব্যবহৃত হয় তাহলে অঙ্গটি ধীরে ধীরে বিলুপ্ত অথবা নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে।

 

Q. সমসংস্থ অঙ্গ কাকে বলে?

 উত্তর : জীবদেহের যে সকল অঙ্গের উৎপত্তি ও গঠন কাঠামাে একই কিন্তু কাজ আলাদা, তাদের সমসংস্থ অঙ্গ বলে। উদাহরণ—পাখির ডানা ও বাদুড়ের ডানা, ঘােড়ার অগ্রপদ ও মানুষের হাত ইত্যাদি সমসংস্থ অঙ্গ।

 

Q. কোয়াসারভেট কী ?

উত্তরঃ ওপারিন (1920)-এর মতে প্রোটিন যৌগগুলি উত্তপ্ত তরল স্যুপ থেকে পৃথক হয়ে একত্রীভূত হয়ে যে দ্বিতীয় আবরণযুক্ত ও প্রোটিন, লিপিড ও কার্বোহাইড্রেট দ্বারা গঠিত কোলয়েড জাতীয় পদার্থ গঠন করেছিল তাকে কোয়াসারভেট বলা হয়। এর থেকে আদিমতম কোশ বা প্রোটোসেল উৎপন্ন হয়েছিল ।

 

Q. মৎস্য, উভচর, সরীসৃপ, পক্ষী ও স্তন্যপায়ীদের হৃৎপিণ্ডের মধ্যে আচরণগত মিল কোথায় ?

উত্তরঃ সকলক্ষেত্রেই হৃৎপিন্ড (i) রক্ত সংগ্রাহী প্রকোষ্ঠ অলিন্দ এবং রক্তপ্রেরক প্রকোষ্ঠ নিলয় সহযোগে গঠিত। (ii) হৃদপেশি দ্বারা গঠিত। (iii) হৃৎপিণ্ড পাম্প যন্ত্রের মতো কাজ করে রক্ত সংবহনের কাজে নিযুক্ত থাকে ।

 

Q. যোগ্যতমের উদবর্তন বলতে কী বোঝো ?

উত্তরঃ ডারউইনের মধ্যে ত্রিধারা জীবন সংগ্রামের পথে যে সব জীব সহায়ক বা অনুকূল অভিযোজনমূলক বৈশিষ্ট্য অর্জন করে, তারাই জীবন সংগ্রামে জয়ী হয় এবং বেঁচে থাকার অধিকারী হয়; অন্যরা কালক্রমে অবলুপ্ত হয়। জীবন সংগ্রামে এই উত্তরণকে যোগ্যতমের উদবর্তন বলে ।

 

Q. উদ্ভিদের সমসংস্থ অঙ্গের উদাহরণ দাও এবং তাদের মধ্যে গঠনগত সাদৃশ্যগুলি লেখো ।

উত্তরঃ উদ্ভিদের কয়েকটি সমসংস্থ অঙ্গ হলো: -আদা, আলু, ওল, পেয়াজ ইত্যাদি। এগুলি সবই ভুনিম্নস্থ কাণ্ড। এদের মধ্যে সাদৃশ্যগুলি হল –পর্ব, পর্বমধ্য, মুকুল,শল্কপত্র ইত্যাদি ।

 

Q. জীবাশ্ম কী ?

উত্তরঃ ভূগর্ভে সুদীর্ঘকাল যাবৎ সংরক্ষিত অধুনালুপ্ত প্রাচীন সামগ্রিক জীবের বা জীবদেহাংশের প্রস্তরীভূত অবস্থা অথবা জীবের সম্পূর্ণ দেহ বা দেহাংশের ছাপ ও ছাঁচ অথবা প্রাকৃতিক উপায়ে সংরক্ষিত সম্পূর্ণ জীবদেহ বা দেহাংশকে জীবাশ্ম বা ফসিল বলে ।

 

Q. চারটি জীবন্ত জীবাশ্ন প্রাণীর উদাহরণ দাও।

উত্তরঃ জীবন্ত জীবাশ্ম : লিমুলাস, পেরিপেটাস, স্ফেনোডন, সিলাকান্থ।

 

Q. আর্কিওপটেরিক্সের দুটি পক্ষীর বৈশিষ্ট্য লেখো।

উত্তরঃ (i)দেখতে পাখির মতো, চঞ্চু থাকে। (ii) অগ্রপদ ডানায় রূপান্তরিত।

 

Q. অর্জিত বৈশিষ্ট্যের বংশানুসরণ বলতে কী বোঝায় ?

উত্তরঃ ল্যামার্কের মতবাদ অনুসারে পরিবেশের প্রভাবে ব্যবহার ও অব্যবহারের মাধ্যমে যে বৈশিষ্ট্য অর্জিত হয় তা বংশানুক্রমে সঞ্চারিত হয় এবং জীবের অভিব্যক্তিতে সাহায্য করে। একে অর্জিত বৈশিষ্ট্যের বংশানুসরণ বলে। এটি অর্জিত বৈশিষ্ট্যের উত্তরাধিকার সূত্র নামে পরিচিত।

 

Q. নিউক্লিক অ্যাসিড কীভাবে গঠিত হয়েছিল ।

উত্তরঃ গরম তরল স্যুপের মধ্যস্থ নিউক্লিওটাইডগুলি যুক্ত হয়েনিউক্লিক অ্যাসিড গঠিত হয়েছিল। বিজ্ঞানীরা অনুমান করেন প্রথমে RNA গঠিত হয়েছিল, এবং পরে DNA গঠিত হয় ।

 

Q. যোগ্যতমের বিবর্তন বলতে কী বোঝায় ?

উত্তরঃ যোগ্যতম বলতে বোঝায় “অনেকের মধ্যে যে যোগ্য” এবং উদবর্তন হলো “জীবনে সংগ্রাম করে প্রকৃতিতে টিকে থাকা ”। ডারউইনের মতে যে সকল জীব প্রকৃতিতে সংগ্রাম করে প্রকরণ বা ভেদ সৃষ্টির মাধ্যমে পরিবেশে নিজের অস্তিত্ব বাচিয়ে রাখে বা টিকে থাকে তারাই প্রকৃতিতে নির্বাচিত হয়। আর যারা বাঁচতে পারে না তারা পৃথিবী থেকে অবলুপ্ত হয়ে যায়। ডারউইন একে যোগ্যতমের উদবর্তন বলেন।

উদাহরণ – অনুকূল ভেদ সৃষ্টির মাধ্যমে লম্বা গলাযুক্ত জিরাফ পৃথিবীতে বেঁচে আছে এবং প্রতিকূল প্রকরণের জন্য ছোটো বা খর্ব গলাযুক্ত জিরাফ পৃথিবী থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে।

 

1. জীবনের উৎপত্তির রাসায়নিক তত্ত্বটি কে প্রকাশ করেন?

উঃ বিজ্ঞানী ওপারিন, ১৯২০ খ্রীষ্টাব্দে।

2. ‘যোগ্যতমের উদ্‌বর্তন’ কথাটির সমর্থক কে?

উঃ ডারউইন।

3. ‘Origin of Species’ বইটি কার লেখা?

উঃ চার্লস ডারউইন-এর লেখা।

4. ডারউইন তত্ত্বের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় কী?

উঃ ডারউইন তত্ত্বের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হল “প্রাকৃতিক নির্বাচন”। অনুকূল ভেদ সমন্বিত জীবেরা প্রকৃতি দ্বারা নির্বাচিত হলে অন্যদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় অধিক সুযোগ সুবিধা ভোগ করে, ফলে তারা অধিক সংখ্যায় বেঁচে থাকে এবং অধিক হারে বংশবিস্তার করে। অপরপক্ষে, প্রতিকূল ভেদ সমন্বিত জীবেরা প্রকৃতি দ্বারা নির্বাচিত হয় না বলে পরাজিত সৈনিকের মতো ধীরে ধীরে অবলুপ্ত হয়।

5. ‘অস্তিত্বের জন্য জীবন সংগ্রাম’ কার মতবাদ?

উঃ চার্লস ডারউইনের।

6. পায়রায় বায়ুথলিতে কটি Air sac থাকে?

উঃ 9টি।

7. পটকার কোথায় রেড গ্রন্থি থাকে?

উঃ অগ্রপ্রকোষ্ঠে।

8. নিউম্যাটোফোর কোথায় দেখা যায়?

উঃ ম্যানগ্রোভ জাতীয় উদ্ভিদে। যেমন- সুন্দরী গাছ।

9. মৌমাছির ওয়াগটেল নৃত্যের মহড়া দেখতে কেমন?

উঃ অনেকটা ইংরেজি ‘8’ অক্ষরের মতো।

10. উটের লোহিত কণিকা দেখতে কেমন?

উঃ অপেক্ষাকৃত বড়ো, ডিম্বাকার এবং নিউক্লিয়াসযুক্ত।

11. উটের দেহকোষে কোথা থেকে জল সরবরাহ হয়?

উঃ উটের পাকস্থলীতে অবস্থিত ওয়টার স্যাক থেকে।

12. কোন গাছের শ্বাসমূল থাকে?

উঃ সুন্দরী গাছের।

13. রাসায়নিক বিবর্তনবাদ কার মতবাদ?

উঃ বিজ্ঞানী ওপারিন ও হ্যালডেনের মতবাদ।

14. প্রথম কোথায় জীবের সৃষ্টি হয়েছিল?

উঃ আনুমানিক 300 কোটি বছর আগে সমুদ্রের জলে প্রথম জীবের আবির্ভাব হয়েছিল বলে বিজ্ঞানীদের ধারণা।

15. কুমীরের হৃৎপিণ্ডের প্রকোষ্ঠের সংখ্যা কটি?

উঃ কুমীর সরীসৃপ হওয়া সত্ত্বেও এদের হৃদপিণ্ড চার প্রকোষ্ঠযুক্ত।

16. শর্করার রাসায়নিক উপাদানগুলি কী ছিল?

উঃ কার্বন (C), হাইড্রোজেন (H) ও অক্সিজেন (O)।

17. ‘গরম তরল স্যুপ’ কোথায় সৃষ্টি হয়েছিল?

উঃ সমুদ্রের জলে।

18. ‘কোয়াসারভেট’-এর প্রবক্তা কে?

উঃ ওপারিন (1920)।

19. মিলার ও ঊরের পরীক্ষার প্রধান উপাদানগুলি কী ছিল?

উঃ মিথেন (CH4), অ্যামোনিয়া (NH3) ও হাইড্রোজেন (H2) গ্যাস।

20. ল্যামার্কের গ্রন্থের নাম কী?

উঃ ফিলোজফি জুওলজিক (Philosophie Zoologique)।

21. ডারউইনের গ্রন্থের নাম কী?

উঃ On the Origin of Species by Means of Natural Selection।

22. ‘অর্জিত বৈশিষ্ট্যের উত্তরাধিকার’ কার মতবাদ?

উঃ ল্যামার্কের।

23. ‘প্রাকৃতিক নির্বাচন’ কার মতবাদ?

উঃ চার্লস ডারউইনের।

24. ল্যামার্কের বিপক্ষে কোন বিজ্ঞানী মত পোষণ করেন?

উঃ বিজ্ঞানী ভাইসম্যান (Weismann)।

25. ডারউইন যে জাহাজে করে ভ্রমণ করেছিলেন তার নাম কী?

উঃ HMS Beagle।

26. ‘মিউটেশন তত্ত্ব’-এর প্রবক্তা কে ছিলেন?

উঃ হুগো দ্য ভ্রিস।

27. আধুনিক ঘোড়ার আদি পূর্বপুরুষের নাম কী ছিল?

উঃ ইওহিপ্পাস।

28. আধুনিক ঘোড়ার নাম কী?

উঃ ইকুয়াস।

29. একটি সমবৃত্তি অঙ্গের উদাহরণ দাও?

উঃ পতঙ্গের ডানা, পাখির ডানা।

30. সমসংস্থ ও সমবৃত্তির কোনটি অভিসারী অভিযোজনের উদাহরণ?

উঃ সমবৃত্তীয় অঙ্গ।

31. কোন প্রাণীর হৃৎপিণ্ডকে ভেনাস হৃৎপিণ্ড বলে?

উঃ মাছের হৃদপিণ্ডকে।

32. কোন উদ্ভিদে পর্ণকাণ্ড দেখা যায়?

উঃ ক্যাকটাস জাতীয় গাছের। যেমন- ফণীমনসা।

33. বাষ্পমোচন রোধের জন ক্যাকটাসের কোন অঙ্গ কাঁটায় রূপান্তরিত হয়েছে?

উঃ পাতা।

34. মাছের কোন অঙ্গ মাছকে জলে ডুবতে ও ভাসতে সাহায্য করে?

উঃ পটকা।

35. পায়রার বায়ু থলির সংখ্যা কত?

উঃ ৯টি

36. উটের লোহিত কণিকার একটি বৈশিষ্ট্য লেখ।

উঃ অপেক্ষাকৃত বড়ো, ডিম্বাকার এবং নিউক্লিয়াসযুক্ত। এই ধরণের লোহিত রক্তকণিকা জল নিরূদন (dehydration) হ্রাস করে।

37. উটের জল ক্ষয় রোধের উপায়গুলি উল্লেখ করো।

উঃ ১। উটের দেহত্বক থেকে বাষ্পীভবন প্রতিরোধ করার জন্য চামড়া খুব পুরু এবং রোমযুক্ত হয়।

২। নিশ্বাসের সঙ্গে জলীয়বাষ্প যাতে বেরিয়ে না যায় সেই কারণে উষ্ণ নিশ্বাসকে নাসাপথে ঠাণ্ডা করে ত্যাগ করে। ফলে নাসাপথে জল ঘনীভূত হয় এবং নাসাপথের কোশগুলি জল শোষণ করে নেয়।

৩। এরা মল-মূত্রের সঙ্গে জল খুব কম ত্যাগ করে। এরা অর্ধকঠিণ মূত্র ত্যাগ করে এবং ইউরিয়ার পরিবর্তে ইউরিক অ্যাসিড ত্যাগ করে। ফলে মূত্রে জলের অপচয় কম হয়। উট শুষ্ক বিষ্ঠা ত্যাগ করার ফলে জলের অপচয় কম হয়।

৪। এদের কুঁজে সঞ্চিত ফ্যাট বিপাক ক্রিয়ায় বিশ্লিষ্ট হয়ে জল উৎপন্ন করে সারা দেহকোশে সরবরাহ করে।

৫। এদের পাকস্থলীতে অবস্থিত ওয়াটার স্যাক থেকে জল প্রয়োজনকালে দেহে সরবরাহ হয়।

৬। হেনলির লুপ জলের পুনঃশোষণ ঘটিয়ে মূত্রকে ঘন হতে সাহায্য করে।

৭। গ্লোমেরিউলাসে পরিস্রুতকরণের হার কম হয়।

38. ‘বায়োজেনেটিক সূত্র’ – এর প্রবক্তা কে?

উঃ হেকেল।

39. জীববিবর্তন বা জৈব অভিব্যক্তি কাকে বলে?

উঃ যে মন্থর ও গতিশীল ধারাবাহিক প্রক্রিয়ায় কোনো উদ্‌বংশীয় সরলতম জীব থেকে ক্রমান্বয়ে জটিল জীবের উদ্ভব হয় তাকে অভিব্যক্তি বা জৈব অভিব্যক্তি বা জীববিবর্তন বলে।

40. ‘গরম তরল স্যূপ’ কীভাবে সৃষ্টি হয়েছিল?

উঃ বিভিন্ন প্রকার জৈব যৌগ, যেমন – অ্যাসিটিলিন, মিথেন, ইথিলিন, অ্যালডিহাইড, কিটোন, অ্যাসিড, গ্লুকোজ, ফ্রুকোজ, শ্বেতসার, ফ্যাটি অ্যাসিড, অ্যামাইনো অ্যাসিড সমুদ্রের জলে মিশে সৃষ্টি হয়েছিল গরম তরল স্যুপ।

41. কোয়াসারভেট কাকে বলে?

উঃ কোয়াসারভেট হল লিপিড, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেড দ্বারা গঠিত এমন এক সত্ত্বা যাতে কোশপর্দার মতো দ্বিস্তরী আবরণ থাকে। কোয়াসারভেট মতবাদের প্রবক্তা ছিলেন ওপারিন।

42. মাইক্রোস্ফিয়ার মডেল কাকে বলে?

উঃ মাইক্রোস্ফিয়ার হল অর্ধভেদ্য পর্দাবেষ্টিত প্রধানত প্রোটিনের একটি গঠন। কোয়াসারভেট বা মাইক্রোস্ফিয়ারের সঙ্গে নিউক্লিক অ্যাসিড যুক্ত হয়ে প্রথম কোশ বা প্রোটোবায়োন্ট বা প্রোটোসেল উৎপন্ন হয়েছিল।

43. অঙ্গের ব্যবহার ও অব্যবহারের সূত্রটি ব্যাখ্যা করো।

উঃ পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলার উদ্দেশ্যে জীবদেহের কোনো কোনো অঙ্গের বেশিমাত্রায় ব্যবহার ঘতে, আবার কোনো কোনো অঙ্গের ব্যবহার কমে যায়। ক্রমাগত ব্যবহারের ফলে নির্দিষ্ট অঙ্গ বা অঙ্গগুলি সবল ও সুগঠিত হয়। অপরপক্ষে, ক্রমাগত অব্যবহারের ফলে অব্যবহৃত অঙ্গগুলি দুর্বল ও ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং কালক্রমে অবলুপ্ত হয়।

44. অর্জিত বৈশিষ্ট্যর উত্তরাধিকার কীভাবে ঘটে?

উঃ পরিবেশের প্রভাবে জীবের জীবনকালে যেসব বৈশিষ্ট্য অর্জিত হয় তা পরবর্তী প্রজন্মের জীবে সঞ্চারিত হয়। এইভাবে প্রতি প্রজন্মে সামান্য পরিবর্তন পরবর্তী প্রজন্মে জমা হতে হতে কালক্রমে তা একটি বড়ো পরিবর্তন হিসাবে দেখা দেয়। এইভাবে জীবের বিবর্তন ঘটে।

45. ল্যামার্কের মতবাদের পক্ষে দুটি উদাহরণ দাও।

উঃ ১। স্থলচর পাখি খাদ্যের খোঁজে জলে যাওয়ার পর ক্রমাগত সাঁতার কাটার ফলে পায়ের আঙুলগুলির অন্তর্বতী স্থানে পাতলা চামড়া সংযুক্ত হয়ে লিপ্তপদে পরিণত হয়েছে। যেমন হাঁসের লিপ্তপদ।

২। ল্যামার্কের মতে, খর্ব গলাযুক্ত জিরাফ উঁচু গাছের পাতা খাওয়ার জন্য গলা ও সামনের পা প্রতি প্রজন্মে একটু একটু করে লম্বা হয়ে বর্তমান কালের লম্বা গলা ও পা-বিশিষ্ট জিরাফের আবির্ভাব হয়েছে।

46. ল্যামার্কের মতবাদের বিপক্ষে দুটি উদাহরণ দাও।

উঃ ১। বিজ্ঞানী ভাইসম্যান ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা করে ল্যামার্কের মতবাদকে নাকচ করেছেন। তিনি একজোড়া ইঁদুর দম্পতির লেজ কেটে দিয়ে তাদের প্রজনন ঘটালেন। নতুন অপত্যদের লেজ কেটে দিয়ে প্রজনন ঘটালেন। এইভাবে ৩৫ জনু ধরে লেজ কাটা সত্ত্বেও লেজবিহীন ইঁদুর সৃষ্টি করা যায়নি।

২। ড্রসোফিলা মাছিকে পরপর ৬০ জনু ধরে অন্ধকার ঘরে রেখে জনন ঘটিয়ে কোনো মাছিই অন্ধ হয়ে জন্মাতে দেখেননি।

47. প্রাকৃতিক নির্বাচনবাদ কাকে বলে?

উঃ যে প্রাকৃতিক প্রক্রিয়ায় অনুকূল ভেদ বা অভিযোজনমূলক ভেদ সমন্বিত জীবেরা অন্যদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় অধিক সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে, তাকে প্রাকৃতিক নির্বাচন বলে।

48. ভেদ বা প্রকরণ কাকে বলে?

উঃ ডারউইনের মতে পৃথিবীতে দুটি জীব কখনোই অবিকল একই রকমের হতে পারে না, অর্থাৎ দুটি জীবের মধ্যে কিছু না কিছু পার্থক্য বা ভেদ থাকবেই। এমনকি একই পিতামাতার দুটি সন্তানের মধ্যেও কিছু না কিছু পার্থক্য দেখা যায়।

49. অস্তিত্বের জন্য জীবন সংগ্রাম কীভাবে ঘটে থাকে?

উঃ অস্তিত্বের জন্য জীবন সংগ্রাম প্রধানত দুভাবে চলে – যথা – ১। অন্তঃপ্রজাতিক সংগ্রাম অর্থাৎ নিজ প্রজাতিভুক্ত জীবদের মধ্যে সংগ্রাম এবং ২। আন্তঃপ্রজাতিক সংগ্রাম অর্থাৎ বিভিন্ন প্রজাতিভুক্ত জীবদের মধ্যে সংগ্রাম।

50. নয়া ডারউইনবাদ কী?

উঃ ভাইসম্যান, দ্য-ভ্রিস, গোল্ডস্মিথ, হ্যালডেন প্রমুখ বিশিষ্ট বিজ্ঞানীগণ ডারউইনের মতবাদকে নতুনভাবে বিশ্লেষণ করে যে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন তাকে নয়া ডারউইনবাদ বা আধুনিক সংশ্লেষণবাদ বলে।

51. ডারউইনবাদের দুটি ত্রুটি উল্লেখ করো।

উঃ ১। ডারউইন ছোটো ছোটো প্রকরণের ওপর বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন, কিন্তু লক্ষ করা গেছে ওইগুলির বংশানুসরণ না ঘটায় অভিব্যক্তিতে এদের কোনো ভূমিকা নেই।

২। ডারউইন কোশ ও জনন কোশের প্রকরণগুলিকে পৃথক করতে পারেননি।

52. সমসংস্থ অঙ্গ কাকে বলে?

উঃ যেসব অঙ্গের গঠন একই প্রকার কিন্তু কাজ আলাদা তাদের সমসংস্থ অঙ্গ বলে।

53. সমবৃত্তি অঙ্গ কাকে বলে?

উঃ যেসব অঙ্গ একই কাজ করে কিন্তু গঠন আলাদা তাদের সমবৃত্তীয় অঙ্গ বলে।

54. নিষ্ক্রিয় অঙ্গ কাকে বলে উদাহরণ দাও।

উঃ যদি কোনো প্রাণীর একটি সক্রিয় অঙ্গের কর্মক্ষমতা লোপ পায়, তবে ওই অঙ্গকে নিষ্কিয় অঙ্গ বা ভেস্টিজিয়াল অঙ্গ বলে।

55. উভচর, সরীসৃপ প্রাণীদের হৃৎপিণ্ডের বৈশিষ্ট্য কী?

উঃ উভচর প্রাণীদের হৃৎপিণ্ড দুটি অলিন্দ ও একটি নিলয় নিয়ে গঠিত। এক্ষেত্রে অলিন্দ দুটি আন্তঃঅলিন্দ পর্দা দিয়ে পৃথক থাকায় অলিন্দে দূষিত ও বিশুদ্ধ রক্ত পৃথক থাকার প্রবণতা দেখা যায়, কিন্তু নিলয়টি এক প্রকোষ্ঠবিশিষ্ট হওয়ায় উভয় রক্ত মিশে যায়।

সরীসৃপের ক্ষেত্রে নিলয়টি অর্ধবিভক্ত হওয়ায় এখানে উভয় রক্ত আংশিকভাবে পৃথক রাখার বন্দোবস্ত লক্ষ করা যায়।

56. ভেনাস হৃৎপিণ্ড কাকে বলে?

উঃ মাছেদের হৃৎপিণ্ডের মধ্য দিয়ে কম অক্সিজেনযুক্ত রক্ত চলাচল করে। এই কারণে মাছেদের হৃৎপিণ্ডকে ভেনাস হৃৎপিণ্ড বলে।

57. ভ্রুণ অবস্থায় মেরুদণ্ডী প্রাণীদের কী কী খুঁজে পাওয়া যায়?

উঃ গলবিল অঞ্চলে বহিস্থ ফুলকা খাঁজ, একসারি অন্তঃস্থ যুগ্ন ফুলকা থলি, লেজসদৃশ গঠনে উপস্থিত খণ্ডকের মতো সজ্জিত মায়োটোম পেশি।

58. অভিব্যক্তি কাকে বলে?

উঃ যে মন্থর ও গতিশীল ধারাবাহিক প্রক্রিয়ায় কোনো উদ্‌বংশীয় সরলতম জীব থেকে ক্রমান্বয়ে জটিল জীবের উদ্ভব হয় তাকে অভিব্যক্তি বলে।

 

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

 

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Subscribe my Youtube channel : Science Duniya in Bangla

and visit Our website : learningscience.co.in 

গণিত প্রকাশ (দশম শ্রেণী) সমাধান

গণিত প্রকাশ (নবম শ্রেণী) সমাধান

গণিত প্রভা (ষষ্ঠ শ্রেণী) সমাধান

জীবন বিজ্ঞান (Life Science)

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Thank You

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQClass 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQClass 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Class 10 Life Science Chapter 4 SAQClass 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ,Class 10 Life Science Chapter 4 SAQ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Insert math as
Block
Inline
Additional settings
Formula color
Text color
#333333
Type math using LaTeX
Preview
\({}\)
Nothing to preview
Insert
error: Content is protected !!